বিনোদন

ডেঙ্গুজ্বরের লক্ষণ ও প্রতিকার

বর্তমানে করোনা ভাইরাসের পাশাপাশি যে রোগটি গুরুতর আকার ধারণ করেছে তা হলো ডেঙ্গুজ্বর।বাংলাদেশে প্রতিদিন অনেক মানুষ ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হচ্ছে।সাধারণত বর্ষা কালে  ডেঙ্গুজ্বরের প্রাদুর্ভাব বেশি দেখা যায়।এটি একটি মারাত্মক ব্যাধি।এডিস এজিপ্টাই ও এডিস এলবোপিক্টাস প্রজাতির মশা এই রোগের প্রধান বাহক।এই প্রজাতির মশার কামড়ের ফলে মানুষ ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়।ডেঙ্গু প্রধানত দুই ধরনের হয়ে থাকে, ক্লাসিক্যাল ডেঙ্গুজ্বর এবং ডেঙ্গু হেমোরেজিক জ্বরআজ আমরা জানব ডেঙ্গুজ্বরের লক্ষণ ও প্রতিকার।চলুন তাহলে জেনে নেই। 

 

ক্লাসিক্যাল ডেঙ্গুজ্বরের লক্ষণ সমূহ ঃ

 

১।প্রচণ্ড জ্বর হওয়া। 

২। সর্দি, কাশি ও গলাব্যথা হওয়া। 

৩। শরীরের হাড় ও মাংসপেশীতে তীব্র ব্যথা। 

৪। মাথায় ও চোখে ব্যথা অনুভব করা । 

৫। শরীরে লালচে দানা যুক্ত ঘামাচির মত দেখা দেওয়া। 

৬। খাওয়ার রুচি কমে যাওয়া। 

৭। অতিরিক্ত ক্লান্তি অনুভব করা। 

 

হেমোরেজিক ডেঙ্গুজ্বরের লক্ষণ সমূহ ঃ 

 

১। তীব্র পেট ব্যথা।

২। অতিরিক্ত  বমি হওয়া 

৩। শরীরে পানি জমে যাওয়া।

৪। মুখের ভেতরে, চোখের সাদা অংশে রক্তের ছাপ দেখা যাওয়া।

৫। প্রচণ্ড দুর্বল হয়ে যাওয়া ও অবসাদ অনুভব করা। 

৬ লিভার দুই সেন্টিমিটারের চেয়ে বড় হয়ে যাওয়া।

৭। রোগির হাত পা ঠাণ্ডা হয়ে যাওয়া ও নীল হয়ে যাওয়া। 

৮। রক্তচাপ অস্বাভাবিকভাবে কমে যাওয়া। 

৯। দীর্ঘক্ষণ ধরে প্রস্রাব না হওয়া। 

১০। শরীরের বিভিন্ন স্থান থেকে রক্তক্ষরণ হওয়া। 

১১। লিভার আক্রান্ত হয়ে জন্ডিস দেখা যাওয়া। 

১২। শ্বাস-প্রশ্বাসের গতি বৃদ্ধি পাওয়া। 

১৩। হটাত করে রোগী অজ্ঞান হয়ে যাওয়া। 

 

ডেঙ্গুজ্বরের প্রতিকার ঃ 

 

১। রাতে অথবা দিনে ঘুমানোর আগে  মশারি টাঙ্গিয়ে ঘুমানো।

২।বাড়ির আশেপাশের  ঝোপঝাপ,আগাছা ও জলাশয় পরিষ্কার করা। 

৩। যেসব স্থানে পানি জমে থাকে সেসব স্থান পরিষ্কার রাখা।

৪।ফুলের টবে পানি জমিয়ে না রাখা। 

৫। মশা নিধনের জন্য স্প্রে, কয়েল ও ম্যাট ব্যবহার করা। 

৬।লম্বা হাতা জামা ও লম্বা প্যান্ট পরিধান করা 

৭। তরল খাদ্য পান করা  ও প্রচুর পরিমাণে পানি, শরবত ইত্যাদি  পান করা।

৮।  বিশ্রাম নেওয়া। 

৯। রোগীকে ভেজা কাপড় দিয়ে বারবার শরীর মুছে দিতে হবে। 

১০। জ্বর কমানোর জন্য প্যারাসিটামল খাওয়া। 

১১। ভিটামিন-সি জাতীয় ফলমূল খাওয়া। 

১২। ডাবের পানি, লেবুর শরবত, ফলের জুস এবং খাবার স্যালাইন ইত্যাদি বেশি বেশি পান করা।

১৩। হেমোরেজিক ডেঙ্গুজ্বরের লক্ষণ সমূহ দেখা দিলে অবশ্যই  ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। 

Related Articles

One Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button